চুয়াডাঙ্গা বৃহস্পতিবার , ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গাভাস্কারের ছোট্ট পরামর্শ ইনজামামের জন্য ছিল ‘আশীর্বাদ’

স্পোর্টস ডেস্ক:

ভারতীয় ব্যাটিং কিংবদন্তি সুনীল গাভাস্কারের ছোট্ট এক পরামর্শে ব্যাটিংয়ের বড় সমস্যা কাটিয়ে উঠেছিলেন বলে জানিয়েছেন ইনজামাম-উল-হক। পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভক্তদের মাঝে সেই ঘটনা সবিস্তারে বলেছেন।

পাকিস্তানের হয়ে ১৯৯২ বিশ্বকাপ জয়ের পর নিজের প্রথম ইংল্যান্ড সফরে বড় সমস্যার মুখোমুখি হন ইনজামান। শর্ট-পিচ বল ঠিকভাবে সামলাতে পারছিলেন না। এ সময় গাভাস্কারের পরামর্শ চেয়েছিলেন ইনজি।

ইনজামাম বলেন, ‘১৯৯২ সালের বিশ্বকাপে দুর্দান্ত সাফল্যের পর ইংল্যান্ড সফরে গিয়েছিলাম। ওটা ছিল ইংল্যান্ডে আমার প্রথম সফর। ওখানকার পিচে কীভাবে খেলতে হয় সে সম্পর্কে কোনো ধারণাই ছিল না আমার। খুব খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিলাম। শর্ট-পিচ ডেলিভারি একেবারেই খেলতে পারছিলাম না।’

তাই গাভাস্কারের শরণাপন্ন হলেন, ‘মৌসুমের মাঝামাঝি হয়ে গিয়েছিল। তখন ইংল্যান্ডে এক চ্যারিটি ম্যাচে গাভাস্কারের সঙ্গে দেখা হয়। আমরা দুজনই ওই ম্যাচ খেলতে গিয়েছিলাম। জিজ্ঞেস করেছিলাম, ‘সুনীল ভাই, শর্ট-পিচ বল খেলতে সমস্যা হচ্ছে। আমার কী করা উচিত?’’

সমস্যা শুনে উপায় বাতলে দেন গাভাস্কার, ‘গাভাস্কার বলেছিলেন একটা ছোট কাজ করতে। সেটি হল, শর্ট-পিচ ডেলিভারি বা বাউন্সারের ব্যাপারে ব্যাটিংয়ের সময় একদম না ভাবা। উনি বলেছিলেন, ব্যাটিংয়ের সময় এগুলোর কথা ভাবলে ফাঁদে পড়ে যাব। বলেছিলেন, বাউন্সার এলে তা তো নিজে থেকেই ধরতে পারবে সঙ্গে সঙ্গে। তাই তা নিয়ে অযথা উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।’

সেই পরামর্শ মেনে অবসরের আগ পর্যন্ত আর সমস্যায় পড়েননি বলে জানান ইনজামাম, ‘নেটে ওই ভাবেই অনুশীলন শুরু করে দেই। মানসিকভাবে জোর বাড়ানোর জন্য খাটতে থাকি। নিজেকে বলি যে, শর্টপিচ বল নিয়ে আর ভাবব না। আর তার পর থেকে অবসরের সময় পর্যন্ত আর কখনো সমস্যায় পড়িনি।’

আপনার মতামত লিখুন:

:

[democracy id="3"]
আক্রান্ত

সুস্থ

মৃত্যু

  • জেলা সমূহের তথ্য
ন্যাশনাল কল সেন্টার ৩৩৩ | স্বাস্থ্য বাতায়ন ১৬২৬৩ | আইইডিসিআর ১০৬৫৫ | বিশেষজ্ঞ হেলথ লাইন ০৯৬১১৬৭৭৭৭৭ | সূত্র - আইইডিসিআর | স্পন্সর - একতা হোস্ট
খেলাধুলা'র এরকম আরো ইনফো